অটোপ্রমোশনের দাবি জানান অনার্স ১ম বর্ষের শিক্ষার্থীরা

করোনাভাইরাসের কারণে পিছিয়ে গেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষা। একাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী অনার্স ১ম বর্ষের পরীক্ষা আগষ্টে শুরুর কথা থাকলেও এ পরীক্ষার ফরম ফিলাপের ডেট এখনও দেওয়া সম্ভব হয়নি। কবে নাগাদ অনার্স ১ম বর্ষের এসব পরীক্ষা হবে তার কোনো সুনির্দিষ্ট তথ্যও পাওয়া যায়নি।

করোনার কারণে কলেজ বন্ধ থাকায় অনার্স ১ম বর্ষের পরীক্ষা নেওয়া এখনো সম্ভব হচ্ছেনা। অনার্স ১ম বর্ষের পরীক্ষার ভবিষ্যৎ নির্ভর করছে করোনা পরিস্থিতির উপর। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই অনার্স ১ম বর্ষের পরীক্ষা নেওয়া যাবে বলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সূত্রে জানা গেছে। এমন পরিস্থিতিতে যথাসময়ে পরীক্ষা না নেওয়া গেলে অটোপ্রমোশনের দাবি জানিয়েছে অনার্স ১ম বর্ষের শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা জানায়, অনার্স ১ম বর্ষের পরীক্ষার সময় পেরিয়ে গেলেও এখনো আমাদের পরীক্ষা শুরু হয়নি। করোনার কারণে দীর্ঘদিন ধরে আমরা পড়াশোনা থেকে পিছিয়ে পড়েছি। ভর্তি হওয়ার পর কয়েকমাস ক্লাস করলেও আমাদের সিলেবাস পূর্ণাঙ্গভাবে শেষ করতে পারিনি। এমন পরিস্থিতিতে আমরা আর কতদিন পরীক্ষার জন্য অপেক্ষা করব। তাই আমাদের অটোপ্রমোশন দিয়ে পরের বর্ষে উত্তীর্ণ করে দেওয়া হোক।

শিক্ষার্থীরা জানায়, আমাদের মূল্যায়ন করার জন্য আরো ৩ টি বর্ষ রয়েছে। আমাদের ১ম বর্ষ শেষ হওয়ার পথে তবুও পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। কবে নাগাদ পরীক্ষা হবে এটাও বলা যাচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতে সেশনজট নিরসনের জন্য অটোপ্রমোশনের কোন বিকল্প নেই। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে বিনীতভাবে অনুরোধ করছি, দয়া করে অতি দ্রুত আমাদের অটোপ্রমোশনের ব্যবস্থা করুন।


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ৪ লাখের বেশি শিক্ষার্থী অনার্স ১ম বর্ষে অধ্যয়নরত রয়েছে। ৭৫০ টির বেশি কলেজে ৪ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থী ৩১ টি বিষয়ে অনার্স ১ম বর্ষের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার কথা রয়েছে। আগষ্টে পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও এখনো ফরম ফিলাপ করা সম্ভব হয়নি। যার ফলে কবে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে তা নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Shares