অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষার বিষয়ে শীঘ্রই ঘোষণা আসছে

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ বর্ষের রেজাল্ট প্রকাশের দাবিতে মানববন্ধন করছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত শিক্ষার্থীরা। আজ সোমবার দুপুরে গাজীপুর মহানগরীর বোর্ড বাজারে অবস্থিত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান গেটের সামনে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে মানববন্ধন করা হয়।

রেজাল্টের দাবিতে মানববন্ধনের একপর্যায়ে শিক্ষার্থীরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকেন। এসময় ওই মহাসড়কে কিছু সময়ের জন্য যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা অনুষ্ঠিত ৫ বিষয়ের ফলাফল অথবা বিকল্প পদ্ধতিতে মূল্যায়নের করে অনার্স চতুর্থ বর্ষের ফল প্রকাশের দাবি জানায়। এসময় পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

পরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বদরুজ্জামান আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে। শিক্ষার্থীরা তার কাছে অনার্স চতুর্থ বর্ষের দাবি তুলে ধরেন। পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আশ্বস্ত করেন খুব শিগগিরই অনার্স চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষার বিষয়ে শিক্ষার্থীদের জানানো হবে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেন শিক্ষার্থীরা।

গত কয়েকমাস ধরেই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ বর্ষের রেজাল্টের দাবি জানাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা। অনার্স ৪র্থ বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের ৫ টি পরিক্ষা যথাযথ ভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। করোনার জন্য বাকি তত্বীয় বিষয়গুলোর পরিক্ষা স্থগিত রয়েছে। এ ৫ বিষয়ের ফলাফল মূল্যায়নের ভিত্তিতে অথবা বিকল্প কোন উপায়ে অনার্স চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষার ফল প্রকাশের দাবি জানিয়েছেন তারা।

শিক্ষার্থীরা জানায়, বর্তমান পরিস্থিতিতে সকল শিক্ষার্থীই মানসিক এবং আর্থিকভাবে বিপর্যস্ত। মেস ভাড়া না দিতে পারায় অনেক শিক্ষার্থী গ্রামে চলে আসায় অনেকে তাদের প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস হারিয়ে ফেলেছে। এমন অবস্থায় ৮০ ভাগ শিক্ষার্থী পরীক্ষা দেওয়ার মানসিকতা হারিয়ে ফেলেছে। তাই সেশনজট নিরসনসহ চাকরির পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার সুযোগ পাওয়ার জন্য পরীক্ষা না নিয়ে কিছু বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করলে আমরা অনেক উপকৃত হবো।

উল্লেখ্য গত ২৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হয় ২০১৯ সালের অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষা। দেশের করোনা পরিস্থিতি অস্বাভাবিক হলে  শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিতব্য সকল পরীক্ষা পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত ঘােষণা করা হয়েছে। যার ফলে মাঝপথেই থেমে যায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষাসহ বিভিন্ন কোর্সসমূহের পরীক্ষা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Shares