এইচএসসিতে জিপিএ ৫ পাচ্ছে লক্ষাধিক শিক্ষার্থী

করোনার কারণে ২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা হচ্ছেনা। জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল মূল্যায়ন করেই এইচএসসির ফলাফল নির্ধারণ করা হবে বলে জানানো হয়েছে। এবার জানা গেল, যারা জেএসসি ও এসএসসি দুটোতেই জিপিএ-৫ পেয়েছে তাদেরকে এইচএসসিতেও একই রেজাল্ট দেয়া হবে। বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ড সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আরো পড়ুন – এইচএসসির ফল ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে, কমিটির কাজ শুরু

চলতি বছর যাদের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় বসার কথা ছিল, তারা ২০১৮ সালে এসএসসি ও ২০১৬ সালে জেএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। ২০১৮ সালে আটটি সাধারণ বোর্ডসহ মোট ১০ বোর্ডে পাস করে ১৫ লাখ ৭৬ হাজার ১০৪ জন। গড় পাসের হার ৭৭.৭৭ শতাংশ।

মোট জিপিএ ৫ পায় এক লাখ ১০ হাজার ৬২৯ শিক্ষার্থী। আর ২০১৬ সালে জেএসসি-জেডিসিতে পাস করে ২১ লাখ ৮৩ হাজার ৯৭৫ জন। গড় পাসের হার ৯৩.০৬ শতাংশ। মোট জিপিএ ৫ পায় দুই লাখ ৪৭ হাজার ৫৮৮ পরীক্ষার্থী।

জেএসসি ও এসএসসির ফলের ভিত্তিতে এইচএসসির মূল্যায়ন হলে জিপিএ ৫ প্রাপ্তির সংখ্যা লক্ষাধিক বেড়ে যাবে। ২০১৬ সালের জেএসসি ও ২০১৮ সালের এসএসসির ফল গড় করলে জিপিএ ৫ হবে এক লাখেরও বেশি। কারণ যে সকল শিক্ষার্থীর জেএসসি ও এসএসসিতে জিপিএ-৫ থাকবে এইচএসসিতেও তাদের জিপিএ-৫ দেয়া হতে পারে।

Grameenphone এর MyGP এপ ডাউনলোড করে জিতে নিন ফ্রি ইন্টারনেট এবং ফ্রি পয়েন্ট MyGP App Download Now শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতেBDJOBS20.COM এর চ্যানেলের সাথেই থাকুন। আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel নতুন বিকাশ অ্যাপ থেকে নিজের একাউন্ট খুলুন মিনিটেই, শুধুমাত্র জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে।

কোথাও যেতে হবে না! আর অ্যাপ থেকে একাউন্ট খুলে প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস!সাথে আছে আরো অ্যাপ অফার: – প্রথম বার ২৫ টাকা রিচার্জে ৫০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস .সর্বমোট ১৫০ টাকা বোনাস পাবেন একজন বিকাশ গ্রাহক। এছাড়া যারা একাউন্ট খুলেছেন তারাও বিকাশ এপ ডাউনলোড করে প্রথম প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস! Bkash App Download Link

আরো পড়ুন- টেস্টের ফলের ভিত্তিতে এইচএসসির ফল প্রকাশের জন্য আইনি নোটিশ

আন্তঃশিক্ষা সমন্বয়ক বোর্ডের সভাপতি অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, যে সকল শিক্ষার্থীর জেএসসি ও এসএসসিতে জিপিএ-৫ থাকবে এইচএসসিতেও তাদের জিপিএ-৫ দেয়া হতে পারে। এক ও দুই বিষয়ে ফেল করে পুনরায় নিবন্ধন করা শিক্ষার্থীদের সেসব বিষয়ে পাস করিয়ে মোট জিপিএ দিয়ে ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

তিনি বলেন, নিচের স্তরের উভয় পরীক্ষায় কম জিপিএ নম্বর অর্জনকারী শিক্ষার্থীরা এইচএসসি পরীক্ষায় ভালো করবে সেই সম্ভাবনা অনেক থাকে। এ কারণে তাদের পাস করিয়ে দেয়া হলেও জিপিএ নম্বর কম থাকবে। তবে সকল সিদ্ধান্ত শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের টেকনিক্যাল কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে চূড়ান্ত করা হবে। পরীক্ষার্থীদের কোন পদ্ধতিতে গড় নম্বর দেয়া হবে সেটি নির্ণয় করতে একটি উচ্চপর্যায়ের কমিটি গঠন করা হবে।

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, গত বছর এইচএসসিতে জিপিএ ৫ ছিল মাত্র ৪৭ হাজার। কিন্তু জেএসসি ও এসএসসির ফলের ভিত্তিতে এইচএসসির মূল্যায়ন হলে জিপিএ ৫ প্রাপ্তির সংখ্যাও দ্বিগুণ বেড়ে যাবে। এ

দিকে জিপিএ ৫ এর সংখ্যা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে জটিলতা তৈরি হবে। কারণ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে আসনসংখ্যা সীমিত। সব মিলিয়ে তা ৫০ হাজারের কাছাকাছি।

আরো পড়ুন- পরীক্ষা ছাড়াই নিবন্ধিত শতভাগ শিক্ষার্থী এইচএসসি পাস করবে

এবার এইচএসসি-সমমান পরীক্ষায় ১৩ লাখ ৬৫ হাজার ৬৮৯ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণের কথা ছিল। এর মধ্যে নিয়মিত ১০ লাখ ৭৯ হাজার ১৮১ এবং অনিয়মিত ২ লাখ ৬৬ হাজার ২০৮ জন।

এদের মধ্যে কেউ কেউ এক-দুই বিষয়ে অকৃতকার্য হলে আবারও পরীক্ষা দেয়ার কথা ছিল। প্রাইভেট পরীক্ষার্থী ৩ হাজার ৩৯০ এবং খারাপ ফলের কারণে ১৬ হাজার ৭২৭ জন পুনরায় পরীক্ষা দেয়ার কথা ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Shares