এসএসসি পরীক্ষা বাতিলের দাবি

এসএসসি পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মানববন্ধন করেছে ২০২১ সালের এসএসসি ব্যাচের পরীক্ষার্থীরা। ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন করা হয়। এতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন ব্যানার ফেস্টুন হাতে নিয়ে অংশ নেয়।

মানববন্ধনে পরীক্ষার্থীরা জানায়, যথেষ্ট প্রস্তুতি থাকা সত্ত্বেও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা বাতিল করে অটো প্রমোশনের ব্যবস্থা করেছে সরকার। এসএসসি পরীক্ষার্থীরা গত দশ মাস ধরে বিদ্যালয়ে যেতে পারেনি। কোনো ধরনের প্রাইভেট-কোচিং করার সুযোগ ছিল না। যার কারণে প্রস্তুতির যথেষ্ট ঘাটতি রয়েছে।

এছাড়া আগামী দিনে করোনার ঝুঁ’কি বাড়বে বলে সরকারের পক্ষে প্রচার চালানো হচ্ছে। এ অবস্থায় আমরা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে চাচ্ছি না। এ সময় পরীক্ষা না নিয়ে অটোপ্রমোশনের জন্য শিক্ষামন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি জানায় তারা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেসিডেন্সিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের পরীক্ষার্থী শেখ ফাহাদ বলে, দীর্ঘ ৯ মাস ধরে করোনা ভাইরাসের প্রভাবে আমরা কোনো ক্লাস করতে পারিনি। স্কুলও বন্ধ রয়েছে। কোচিং সেন্টারও বন্ধ ছিল। যার কারণে আমাদের পড়ালেখায় অনেক ঘাটতি রয়েছে। এখন যদি ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া হয় তাহলে আমাদের পক্ষে পরীক্ষা দেওয়া সম্ভব নয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের আরেক পরীক্ষার্থী ইয়াছিন ইসলাম বলে, করোনার কারণে আমাদের কোনো পড়ালেখা করা হয়নি। এখন যদি আমরা পরীক্ষা দেই তাহলে আমাদের রেজাল্ট ভালো হবে না। যার কারণে আমরা ভবিষ্যতে ভালো কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারব না। চাকরির ক্ষেত্রেও এর প্রভাব পড়বে।

পরে মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে। প্রতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। এর আগে নভেম্বরে এসএসসি শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণের কাজ হয়ে থাকে। তবে এবার ফরম পূরণও হয়নি।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares