শিক্ষার্থীদের এইচএসসির রেজিস্ট্রেশনের টাকা ফেরত পাওয়া নিয়ে এইমাত্র যে সিদ্ধান্ত হলো

জুমবাংলা ডেস্ক: মহামারি কোভিড-১৯-এর সংক্রমণ ঝুঁকির কারণে বাতিল হয়েছে এবারের এইচএসসি পরীক্ষা।

পরীক্ষা বাতিল হলেও শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশনের টাকা ফেরত দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন ঢাকা শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান মু. জিয়াউল হক।


এইচএসসি
বুধবার (৭ অক্টোবর) আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সাব কমিটি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান মু. জিয়াউল হক এই তথ্য জানান।

এছাড়া ঢাকা শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, রেজিস্ট্রেশন থেকে পাওয়া পুরো টাকা না হওয়া এই পরীক্ষা আয়োজনের পেছনেই ব্যয় হয়ে গেছে।

এ বিষয়ে মু. জিয়াউল হক বলেন, ‘এই পরীক্ষাটি গেল মার্চ মাসে যখন স্থগিত করা হয় তখন পরীক্ষা আয়োজন প্রায় সম্পন্ন হয়ে গিয়েছিল। ফলে রেজিস্ট্রেশনের প্রায় সব টাকাই তখন খরচ হয়ে যায়। এজন্য শিক্ষার্থীদের টাকা ফেরত দেওয়ার কোনো পরিকল্পনা আমাদের নেই।

তিনি জানান, ‘প্রশ্ন ছাপানো, উত্তরপত্র তৈরিসহ বিভিন্ন খাতে এই টাকা ব্যয় করা হয়েছে।’

এর আগে গেল ১৭ মার্চ এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। এর আগেই অবশ্য এই পরীক্ষার জন্য বোর্ড রেজিস্ট্রেশন বা নিবন্ধন করে রেখেছিল পরীক্ষার্থীরা।

এদিকে এবার এইচএসসি পরীক্ষা না হয়ে এর বদলে শিক্ষার্থীদের জেএসসি, জেডিসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে মূল্যায়নের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বুধবার (৭ অক্টোবর) এইচএসসি পরীক্ষার সিদ্ধান্তের বিষয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এই তথ্য জানান।

ডা. দীপু মনি বলেন, ‘করোনাভাইরাস কবে যাবে সেটি আমরা কেউ জানি না। এ পরিস্থিতিতে এইচএসসি পরীক্ষার আয়োজন করা অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ নিতে গিয়ে শিক্ষার্থীদের ঝুঁকিতে ফেলতে চাই না।’

তিনি আরও বলেন, ‘সাড়ে ১৩ লাখের বেশি পরীক্ষার্থী উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষা দেবে। আড়াই হাজারের বেশি পরীক্ষা কেন্দ্র প্রস্তুত ছিল, এখন তা দ্বিগুণ করা হবে।

প্রশ্নপত্র করা হয়েছিল, তা খুলে আবার নতুন করে প্রশ্নপত্র প্রস্তুত করতে হবে। তার ওপরে দ্বিগুণ প্রশাসনের জনবল নিয়োগ করার প্রয়োজন পড়বে।

এত বিশাল আয়োজন এখন করা সম্ভব নয়।’

মন্ত্রী বলেন, ‘সব বিবেচনায় আমরা সরাসরি পরীক্ষা না নিয়ে বিকল্প উপায়ে মূল্যায়নের চিন্তা করছি। আমাদের হাতে দুটি পাবলিক পরীক্ষার ফল আছে তা দিয়েই মূল্যায়নের চিন্তা করছি।

আর এ সিদ্ধান্ত সংশ্লিষ্ট অভিভাবক, শিক্ষা বিশেষজ্ঞসহ সকলের মতামত নিয়েই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares