৩০ সেপ্টেম্বর জানা যাবে ছুটি বাড়ছে কিনা আর এইচএসসি পরীক্ষার ভবিষ্যৎ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি আরও বাড়বে কি না ও এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে করণীয় কী হতে পারে এসব বিষয়ে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা দীপু মনি। শিক্ষামন্ত্রীর এই সংবাদ সম্মেলনের বিষয়টি মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের জানিয়েছেন। করোনাকালীন শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণা দিবেন শিক্ষামন্ত্রী।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর শিক্ষামন্ত্রী ডা দীপু মনি এক সংবাদ সম্মেলনে দেশের করোনার সার্বিক পরিস্থিতিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়ানোর ঘোষণা দিতে পারেন। আর এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে করণীয় কী হতে পারে সে বিষয়েও শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণায় জানা যাবে।

করোনার কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি আগামী ০৩ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। ১ এপ্রিল থেকে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকলেও করোনাভাইরাসের কারণে তা স্থগিত রয়েছে। এদিকে করোনার কারণে এবার পঞ্চম শ্রেণির পিইসি-ইইসি ও অষ্টমের জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে।

করোনার মধ্যে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরে টিভিতে ক্লাস সম্প্রচার করা হচ্ছে। আর উচ্চ মাধ্যমিক এবং উচ্চ শিক্ষাস্তরে অনলাইনে ক্লাস পরিচালনা করছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো। পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণির পাবলিক পরীক্ষা বাতিল করে স্কুলে স্কুলে বার্ষিক পরীক্ষা নিয়ে মূল্যায়ন করার কথা রয়েছে।

২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষা করোনার কারণে স্থগিত করা হয়েছে। আন্তঃশিক্ষা বোর্ড এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা জানান, এইচএসসি পরীক্ষার বিকল্প নেই। কারণ, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিসহ উচ্চ শিক্ষার বিষয়টি এইচএসসি পরীক্ষার ওপর নির্ভর করছে। এজন্য সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, আগে থেকে প্রস্তুতি ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে শিক্ষার্থীদের ঝুঁকির মধ্যে ফেলা হবে না। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর দিক নির্দেশনা রয়েছে। তাই স্কুল-কলেজ খোলার আগে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়সহ আমাদের টেকনিক্যাল কমিটির সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে না।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানিয়েছেন, এইচএসসি এবং অন্যান্য পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে দুই মন্ত্রণালয় জোরালো চিন্তা-ভাবনা করলেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার মতো সময় আসেনি। এইচএসসি ও অন্যান্য পরীক্ষা সেটা শিক্ষা মন্ত্রণালয় তারা আলোচনা করছে। তারা দেখবে দেখে কুইকলি একটা সিদ্ধান্ত নেবে।

এদিকে চারটি শর্ত দিয়ে আগামী অক্টোবর ও নভেম্বর মাসে ব্রিটিশ কাউন্সিলের পরিচালনায় ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষার্থীদের ‘ও’ এবং ‘এ’ লেভেলের পরীক্ষা নেওয়ার অনুমতি দিয়েছে সরকার। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সারা দেশে ৩৫টি ভেন্যুতে প্রতিদিন সর্বোচ্চ এক হাজার ৮০০ পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা নেওয়া যাবে এবং প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে কমপক্ষে ছয় ফুট দূরত্বে বসাতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares