এলজিইডি -তে বিশাল নিয়োগ

Local Government Engineering Department LGED Jobs circular 2019has been Published at Official website-www.lged.gov.bdLGED Jobs circular 2019 Related all details information found my website that is bdjobstotal.com.  This Government Jobs circular Published at Bangladesh pratidin Newspaper.06/04/2019. Application deadlines .

LGED Jobs circular 2019

Local Government Engineering Department Job Circular 2019

Post name: Accoutant Assistant Type of Jobs: Government Jobs Job category: Official Jobs Job Level: Midlevel Job description / Responsibilities Educational Requirements: HSC Pass Additional Job Requirements: N/A Other Benefits: Salary; 9.300,22,490/- Jobs Location:Bagladesh Age limit for jobs:  Application Fee: See advertisement Deadline: Jobs Source: Newspaper and Official websiteL lged.gov.bd lged teletalk application link: lged.teletalk.com.bd

LGED Jobs circular 2019-www.lged.gov.bd

LGED Teletalk application form 2019

After Submit your npcbl teletalk online application you must be pay for LGED application fee \….. Taka. For complete your payment follow this sms format below.

Candidate can easily apply LGED teletalk online application from visiting www.lged.teletalk.com.bd . For Apply You have to collect your Pass port size image with signature. For lged SMS format also available at bdjobstotal.com.

After Submit Your LGED Teletalk Online Application Form  & you can must be pay for LGED

Application Fee 56-112 Taka. For Complete your payment follow this sms below.

■ How to Mobile SMS For lged Teletalk Application

■ (i) SMS: LGED < Space>User ID send to 16222

■ Example: LGED ABCDEF

■ Reply: Applicant’s Name. Tk.56-112 will be charged as application fee.

■ Your PIN is (8 digit number)12345678.

■ To Pay Fee : Type LGED < Space>Yes< Space>PIN and send to 16222

■ (ii) SMS: LGED < Space> Yes < Space>PIN – send 16222 Number

■ Example: LGED YES 12345678

■ Reply: Congratulations Applicant’s Name, payment completed successfully for LGED Application 

■ If you LGED Job Password Deleted or Lost:

■ (i) LGED Help User ID and send to 16222

■ Example: LGED HELP USER ABCDEF).

■ (ii) LGED Help PIN No and send to 16222

■ Example:LGED  HELP PIN (12345678). Post of Name: Junior Officer

Apply Instruction:

  • Must be Qualified all Candidate -Education Qualification, Age, National ID card or Birth Certificate All Requirement.
  • Go to online Application website (lged.teletalk.com.bd).
  • Application Form (Click here to apply Online)
  • Fill out the application form with the necessary information. Important information is Applicant name, fathers name, mothers name, date of birth, NID number, passport number, birth registration number, quota information, marital status, permanent address, present address, an active mobile number, email (if any), Educational Information (including SSC and HSC / equivalent roll number
  • Click here to Select your post name.
  • Fill-up Your Full Application form. Then Update your Photo Scan Copy(Photo size must be 300 by 300 Pixel, JPG Format, Photo Size- 100 KB) and Signature Scan Copy (Signature photo size must be 300 by 80 pixel, Photo size-60 KB).
  • Re-Check your full Application form.
  • Then submit your application.If You Complete Online Application and Submit Properly, You Will Get Application ID / User ID. Now Print Your Application Copy and Pay Fee.

LGED Admit Card Download 2019

Directorate General of Health Services LGED Admit Card Download:

  1. Visit http://lged.teletalk.com.bd website.
  2. Click Admit Card menu
  3. Login with your user ID and password.
  4. Click Download Option and download PDF file.
  5. Print the admit card in color in A4 size paper.

Apply Now or collect Application form or Apply Online Now! See Original Jobs circulat to found official website for Online Apply or Collect Application form.


প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে বিশাল নিয়োগ

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন কন্ট্রোলার জেনারেল ডিফেন্স ফাইন্যান্স এর কার্যালয়ে স্থায়ী  শূন্য পদ গুলোতে অস্থায়ী ভাবে ৩২ জনকে নিয়োগে দেয়া হবে। পদগুলোতে নারী ও পুরুষ উভয়েই আবেদন করতে পারবেন। আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। আগ্রহ  ও  যোগ্যতা থাকলে আপনিও আবেদন করতে পারেন। সম্পূর্ণ বিজ্ঞপ্তি বিস্তারিত দেওয়া হল।

পদের নাম : জুনিয়র অডিটর (এলডিএ-কাম-টাইপিস্ট)
পদের সংখ্যা : ৩২টি
শিক্ষাগত যোগ্যতা : এইচ.এস.সি/সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং কম্পিউটার টাইপিং এ প্রতি মিনিটে বাংলায় ২০ ও ইংরেজীতে ২০ শব্দ হতে হবে।
বেতন স্কেল : ৯,৩০০ – ২২,৪৯০ টাকা।

আবেদনের নিয়ম: আবেদন করতে হবে অনলাইনে http://cgdf.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটের মাধমে। অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু হবে ১৮ আগস্ট সকাল ১০:০০ টা থেকে। আবেদন জমা দেওয়ার শেষ সময় ১৭ সেপ্টেম্বর বিকেল ৫টা পর্যন্ত। অনলাইনে আবেদন জমা দেওয়ার সময় থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার ফি জমা দিতে হবে। আবেদনপত্রের যথাস্থানে ৩০০ বাই ৩০০ পিক্সেলের ছবি এবং ৩০০ বাই ৮০ পিক্সেলের স্বাক্ষর স্ক্যান করে আপলোড করতে হবে। অনলাইনে জমা দেওয়া আবেদনের একটি কপি প্রিন্ট ও ডাউনলোড করে সংরক্ষণ করে করতে হবে। আবেদন সাবমিট করার পর ইউজার আইডি ব্যবহার করে টেলিটক প্রিপেইড মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন ফি পরিশোধ করতে হবে।

আবেদন শুরুর সময়: ১৮ আগস্ট ২০১৯ সকাল ১০:০০ টা থেকে আবেদন করা যাবে।
আবেদনের শেষ সময়: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বিকাল ০৫:০০ টা পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

Apply

বিস্তারিত জানতে অফিসিয়াল বিজ্ঞপ্তিটি দেখুন:

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়েছে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের সকল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি এখন থেকে আমাদের এই পেজে নিয়মিত আপডেট করা হবে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের সকল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি সবার আগে পড়তে এই পেজে বিজিট করুন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর শূন্য পদ সমূহে জনবল নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুসারে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ১৮টি পদে মোট ১৪৩ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে। পদগুলোতে নারী ও পুরুষ উভয়েই আবেদন করতে পারবেন। আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখ পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন। সম্পূর্ণ বিজ্ঞপ্তি বিস্তারিত দেওয়া হল।

পদের নাম : প্রভাষক (ইউনানী)
পদ সংখ্যা : ১০ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.ইউ.এম.এস।

পদের নাম : প্রভাষক (আয়ুর্বেদিক)
পদ সংখ্যা : ০৩ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.এ.এম.এস।

পদের নাম : প্রভাষক (হোমিওপ্যাথিক)
পদ সংখ্যা : ০২ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.এইচ.এম.এস।

পদের নাম : ইনডোর মেডিকেল অফিসার (ইউনানী)
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.ইউ.এম.এস।

পদের নাম : ইনডোর মেডিকেল অফিসার (আয়ুর্বেদিক)
পদ সংখ্যা : ০২ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.এ.এম.এস।

পদের নাম : রেসিডেনসিয়াল ফিজিসিয়ান (আরপি) (ইউনানী)
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.ইউ.এম.এস।

পদের নাম : রেজিস্ট্রার (ইউনানী)
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.ইউ.এম.এস।

পদের নাম : সহকারী রেজিস্ট্রার (ইউনানী)
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.ইউ.এম.এস।

পদের নাম : সহকারী রেজিস্ট্রার (আয়ুর্বেদিক)
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.এ.এম.এস।

পদের নাম : সহকারী রেজিস্ট্রার (হোমিওপ্যাথিক)
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.এইচ.এম.এস।

পদের নাম : প্রোডাকশন/রিসার্চ/কোয়ালিটি কন্ট্রোল অফিসার- (ইউনানী)
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.ইউ.এম.এস।

পদের নাম : মেডিকেল অফিসার (ইউনানী)
পদ সংখ্যা : ৪০ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.ইউ.এম.এস।

পদের নাম : মেডিকেল অফিসার (হোমিওপ্যাথিক)
পদ সংখ্যা : ৩৫ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.এইচ.এম.এস।

পদের নাম : মেডিকেল অফিসার (আয়ুর্বেদিক)
পদ সংখ্যা : ৩৮ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.এ.এম.এস।

পদের নাম : ড্রাগ সুপারিনটেনডেন্ট (ইউনানী)
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.ইউ.এম.এস।

পদের নাম : ড্রাগ সুপারিনটেনডেন্ট (আয়ুর্বেদিক)
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.এ.এম.এস।

পদের নাম : ড্রাগ সুপারিনটেনডেন্ট (হোমিওপ্যাথিক)
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি.এইচ.এম.এস।

পদের নাম : ফার্মাসিষ্ট
পদ সংখ্যা : ০৩ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : ব্যাচেলর অফ ফার্মেসী।

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে http://ldamc.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেন করতে পারবেন।

আবেদন শুরুর সময়: ২০ আগস্ট ২০১৯ তারিখ সকাল ১০:০০ টা থেকে আবেদন করা যাবে।
আবেদনের শেষ সময়: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বিকাল ০৫:০০ টা পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

Apply

বিস্তারিত বিজ্ঞপ্তিতে দেখুন…

বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

 শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীনে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন জনবল নিয়োগের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। প্রতিষ্ঠানটি ৫৪টি পদে মোট ৩১৯ জনকে নিয়োগ দেবে। পদগুলোতে নারী ও পুরুষ উভয়েই আবেদন করতে পারবেন। আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। আগ্রহ ও যোগ্যতা থাকলে আপনিও আবেদন করতে পারেন। সম্পূর্ণ বিজ্ঞপ্তি বিস্তারিত দেওয়া হল।

আবেদন শুরুর সময় : ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখ সকাল ১০:০০ টা থেকে শুরু হবে।
আবেদনের শেষ সময় : ০১ অক্টোবর ২০১৯ তারিখ সন্ধ্যা ০৬:০০ টায় শেষ হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া: আবেদন করতে হবে অনলাইনে http://bscic.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটের মাধমে অনলাইনে আবেদনপত্র পাঠাতে হবে। অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু হবে ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখ সকাল ১০:০০ টা থেকে। অনলাইনে আবেদন জমা দেওয়ার সময় থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার ফি জমা দিতে হবে।Apply

বিস্তারিত বিজ্ঞপ্তিতে দেখুন…

২০০ জনের বিশাল নিয়োগ রাজশাহীতে

ইতিহাস

১৮৭৬ সালের ১ এপ্রিল ভুবন মোহন পার্কের অভ্যন্তরে টিন সেডের দুটি কক্ষে রাজশাহী পৌরসভা (রামপুর-বোয়ালিয়া মিউনিসিপ্যালিটি) কাযর্ক্রম শুরু করে। পরে ভুবন মোহন পার্ক থেকে রাজশাহী কলেজের একটি বৃহৎ কক্ষে পৌরসভা দপ্তর স্থানান্তর করা হয়। রাজশাহী পৌরসভার কাযর্ক্রম পরিচালনার জন্য রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ হর গোবিন্দ সেনকে প্রথম চেয়ারম্যান করে মোট ৭ সদস্য বিশিষ্ট প্রথম টাউন কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির সকল সদস্যই ছিলেন সরকার মনোনীত। জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, মহকুমা প্রশাসক ও মেডিক্যাল অফিসার ছিলেন পদাধিকার বলে সদস্য। পরবর্তীতে পৌর নিবার্চনের মাধ্যমে কমিটি গঠনের পদ্ধতি প্রবতর্ন করা হয়।

চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান কমিশনারগণের ভোটে নির্বাচিত হতেন। বেশির ভাগ কমিশনারই করদাতাদের ভোটে নিবার্চিত হতেন। ১৮৮৪ সালে মিউনিসিপ্যালিটি অ্যাক্টের ৩নং ধারা মতে ২১ জন কমিশনারের সমন্বয়ে কমিটি গঠন করা হয়েছিল। তম্মধ্যে ১৪জন ছিলেন নিবার্চিত এবং ৭ জন মনোনীত। ১৯২১ সালে সোনাদীঘির পাড়ে বতমান পৌর ভবনটি নির্মিত হলে রাজশাহী কলেজ থেকে পৌরসভা দপ্তর, সিটি ভবনে স্থানান্তরিত হয়। পৌর সেবা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার উদ্দেশ্যে ১৯৩০ সালে ৮টি পৌর কমিটি গঠন করা হয়েছিল। কমিটিগুলো প্রথকভাবে অর্থ, গণপূর্ত, আলো, পানি পয়ঃপ্রণালী ও স্বাস্থ্য, শিক্ষা, আপীল (Appeal) এবং রাজা টি. এন. রায় প্রতিষ্ঠিত সদর হাসপাতাল কাযক্রম পরিচালনা করত। নির্বাচিত পরিষদের সভায় কমিটি গুলোর সুপারিশ আলোচনা করে সিদ্ধান্ত গৃহীত হতো। এক বছর মেয়াদে কমিটি গঠিত হতো এবং পৌর এলাকা ছিল ৭টি ওয়ার্ডে বিভক্ত।

১৮৭৬ সালে যখন পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হয় তখন লোক সংখ্যা ছিল মাত্র ১০ হাজার জন। ১৮৭৬ সালে পৌরসভার একটি মিউনিসিপ্যাল বোর্ডও গঠিত হয়। ১৯৫৯ সালে মৌলিক গনতন্ত্র আদেশের বিধান অনুযায়ী মিউনিসিপ্যাল বোর্ডই মিউনিসিপ্যাল কমিটি হিসাবে কাজ করে আসছিল। মিউনিসিপ্যাল কমিটির নিয়ন্ত্রণাধীন এলাকার আয়তন ছিল ৬.৬৪ বর্গ মাইল পশ্চিমে হড়গ্রাম বাজার থেকে পূবে রুয়েট পযর্ন্ত ছিল এর এলাকা। লোকসংখ্যা ৫৬৮৮৩ জন। ১৯৫৮ সালের ৫ অক্টোবর তৎকালীন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কে. এম. এস রহমান সরকারি নির্দেশে মিউনিসিপ্যাল কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে প্রশাসক নিয়োগ করেন।

রাতের বেলায় আলোকসজ্জায় সজ্জিত নগর ভবন

১৯৭৪ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি পযর্ন্ত মরহুম এ্যাডভোকেট মুজিবুর রহমান এম. এ. এল এল. বি স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম নিবার্চিত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। পট পরিবতর্ন হয়ে ১৯৮৭ সালের সালের ১৩ আগষ্ট রাজশাহী পৌরসভা পৌর কর্পোরেশনে উন্নীত হয় এবং এ্যাভোকেট আব্দুল হাদি সরকার কতৃর্ক প্রশাসক মনোনীত হন। ১৯৮৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বর পৌর কর্পোরেশন সিটি কর্পোরেশনে পরিণত হলে জনাব আব্দুল হাদি প্রথম মেয়র মনোনীত হন। পৌরসভা সিটি কর্পোরেশনে উন্নীত হওয়ার এর আয়তন ও জনসংখ্যা বৃদ্ধি পায়।

ইন্টারভিউতে করা আটটি ‘পরিচিত’ প্রশ্ন

যেকোনো চাকরিতেই নিয়োগের আগে প্রার্থীকে মুখোমুখি হতে হয় ইন্টারভিউ বোর্ডের। আপনি যে পদের জন্য আবেদন করেছেন, তার জন্য আপনি কতটা উপযুক্ত, তা যাচাই করে নেওয়ার জন্যই এ প্রক্রিয়ার আয়োজন করা হয়ে থাকে। বর্তমান সময়ে যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে বাংলার পাশাপাশি ইংরেজিরও কর্মক্ষেত্রে ব্যাপক চাহিদা থাকায় ইন্টারভিউর মাধ্যমে একই সঙ্গে আপনার ইংরেজি ভাষায় স্পিকিং (Speaking) ও লিসেনিং (Listening)-এ দখল কতটুকু, তা-ও লক্ষ করা হয়।

নিয়মিত চর্চায় ঘাটতির কারণে অনেকেই ইংরেজিতে পড়তে ও লিখতে কোনো সমস্যার সম্মুখীন না হলেও ইংরেজিতে কনভারসেশন (Conversation) বা আলাপ চালাতে গিয়ে বিড়ম্বনায় পড়েন। ইন্টারভিউ যেহেতু একটু ফরমাল প্রক্রিয়া, তাই শব্দচয়ন ও বাক্যগঠনের ক্ষেত্রে আপনাকে সতর্কতার পরিচয় দিতে হবে। কারণ, সামনে যিনি বসে আছেন, তিনি আপনার ভবিষ্যৎ কর্মক্ষেত্রের বস, আপনার কোনো পরিচিত ব্যক্তি বা বন্ধু নন।

আজকের আয়োজনে আমরা জেনে নেব, ইন্টারভিউতে ইংরেজিতে করা আটটি সাধারণ প্রশ্ন এবং সেসবের উত্তর সম্পর্কে। একই সঙ্গে আমরা আলোচনা করব, উত্তর দেওয়ার সময় কী কী বিষয় পরিহার করতে হবে, তা নিয়েও।

১. Tell me about yourself? (আপনার নিজের সম্পর্কে কিছু বলুন)

ইন্টারভিউর শুরুতেই আপনি এই প্রশ্নটির সম্মুখীন হতে পারেন। প্রশ্নকর্তা চাইলে আরেকটু কায়দা করে, ‘Run me through your CV.’ (আমাকে আপনার সিভি সম্পর্কে ধারণা দিন।) এ প্রশ্নটি করার মূল উদ্দেশ্য আপনার আত্মবিশ্বাস (Confidence), উৎসাহ (Enthusiasm উচ্চারণ– এন-থু-সি-আ-জম) এবং নিজের সম্পর্কে প্যাশন (Passion)-এর মাত্রা দেখে নেওয়া। এই প্রশ্নটির উত্তর আপনি কীভাবে দিচ্ছেন, তা আপনার কমিউনিকেশন স্কিল সম্পর্কেও ধারণা দেবে। ‘I love watching movies.’, ‘I love partying!’, ‘I have so many friends.’ এ ধরনের জবাব পরিহার করে বরং কথা বলুন আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা, পরিবার এবং পূর্ববর্তী কাজের অভিজ্ঞতা নিয়ে অনেকটা এভাবে :

‘I grew up in France and I studied Accounting. I also worked for an accounting farm for 8 months. I really enjoy solving numbers and maybe this is the reason why I like this job. In my spare (স্পেয়ার) time I like to read.’ অর্থাৎ, আমি ফ্রান্সে বড় হয়েছি এবং সেখানেই অ্যাকাউন্টিং নিয়ে পড়াশোনা করেছি। আমার একটি অ্যাকাউন্টিং ফার্মে আট মাস কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। সংখ্যা নিয়ে কাজ করতে আমার ভালো লাগে এবং এই একই কারণে এই চাকরি করতেও আমি আগ্রহী। অবসর সময়ে আমি বই পড়তে পছন্দ করি।

কথার মাঝে Fumbling (ফাম্বলিং) বা তোতলানো এড়াতে এবং পরবর্তী বাক্য কী হবে, তা গুছিয়ে নিয়ে গ্যাপ ফিলারস ব্যবহারের মাধ্যমে দুটো বাক্যের মাঝে স্বল্প সময়ের বিরতি নিন।

২. What are your strengths (স্ট্রেন্থস)? (কোন বিষয়গুলোতে আপনি দক্ষ?)

আপনি নিজের সম্পর্কে কতটুকু পজিটিভ, তা দেখার জন্য এই প্রশ্ন করা হয়। জবাব দেওয়ার সময় চেষ্টা করুন একটি বাক্যে নিজের গুণ সম্পর্কে সরাসরি না বলে বরং সংক্ষেপে তা আলোচনা করতে। ‘I am a very friendly person.’ এভাবে না বলে, বলুন :

‘My strongest strength is attention to detail. I totally believe in planning and execution (এক্সিকিউশন). In fact, when I was in my college I used to organize my week. Because of my very outgoing nature many people have said that I am quiet approachable (অ্যাপ্রচেবল) so, I believe these are my strengths.’

(আমার সবচেয়ে সেরা গুণ হচ্ছে আমি যেকোনো কাজকে নিখুঁতভাবে সম্পন্ন করার জন্য চেষ্টা করি। আমি পরিকল্পনার মাধ্যমে ধাপে ধাপে সামনে এগোই। কলেজে পড়ার সময়েও আমি আমার সারা সপ্তাহের কাজের তালিকা তৈরি করে রাখতাম এবং তা অনুসরণ করতাম। আমার মিশুক স্বভাবের কারণে অনেকেই এটা মনে করেন যে আমি সহজেই মানুষের সঙ্গে মিশতে পারি।)

৩. What are your weaknesses (উইকনেসেস)? (আপনার দুর্বল দিকগুলো কী কী?)

এ প্রশ্নের জবাবে সরাসরি ‘I am very impatient (ইম্প্যাশেন্ট).’, ‘I get angry really fast.’ এভাবে নিজের দুর্বল দিকগুলো নিয়ে কথা না বলে বরং একটু ঘুরিয়ে বলুন :

‘I think my weakness is I am way too detail oriented (ওরিয়েন্টেড). I try to accomplish (আকমপ্লিশ) everything and I just want everything to be perfect, but then I realise, I am taking extra time/I am spending too much time. And, maybe that makes me submitting projects late. So I guess this is my weakness.’

(আমার সবচেয়ে বড় দুর্বলতা হচ্ছে আমার খুঁতখুঁতে স্বভাব। আমি সমস্ত কাজ নিখুঁতভাবে করতে চাই এবং তা করতে গিয়ে প্রয়োজনের থেকে অনেক বেশি সময় ব্যয় করে ফেলি। এ কারণেই আমি নির্ধারিত সময়ে অনেক ক্ষেত্রে প্রজেক্ট জমা দিতে পারি না। আমার মতে, এটিই আমার দুর্বল দিক।)

প্রশ্নকর্তার এই প্রশ্নটি করার উদ্দেশ্য হলো আপনি আপনার দুর্বলতা সম্পর্কে জানেন কি না এবং আপনি কীভাবে সেটিকে ভালো দিকে কাজে লাগান, তা যাচাই করে দেখা।

৪. Where do you see yourself in five years? (আগামী পাঁচ বছরে আপনি নিজেকে কোথায় দেখতে চান?)

ভবিষ্যৎ সম্পর্কে আপনার দূরদর্শিতা কতখানি, তা দেখার জন্য প্রশ্নটি করা হয়। অনেকেই এর জবাব দিতে গিয়ে একটু অপ্রস্তুত হয়ে পড়েন, কারণ ভবিষ্যতে কী হবে, তা কেউই জানেন না। একই প্রশ্ন ঘুরিয়ে এভাবেও করা হতে পারে যে, ‘What are your long-term (দীর্ঘমেয়াদি)/ short-term (স্বল্পমেয়াদি) goal?’

‘I would like to be the CEO of this company.’, ‘I would like to own an airline’-এর মতন অবাস্তব উত্তর দিয়ে পরিবেশকে হালকা না করে বরং এভাবে বলুন :

‘Well five years from now, I would like be in the management position. Till then, I would like to gain practical experience and then eventually become a Manager. Of course, I would like to share and learn new things from my team members.’ অর্থাৎ, আগামী পাঁচ বছরে আমি নিজেকে ম্যানেজমেন্ট (ব্যবস্থাপনা) পজিশনে দেখতে চাই। তবে এর মধ্যবর্তী সময়ে আমি বাস্তবিক কর্মক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে চাই। আমি আমার দলের সদস্যদের সঙ্গে কাজ করে নতুন নতুন বিষয় শিখতে ও জানতে চাই এবং তাদের সঙ্গে আমার অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করতে চাই।

৫. What do you know about our company? (আমাদের কোম্পানি সম্পর্কে আপনি কী জানেন?)

এই প্রশ্নটির মুখোমুখি আপনাকে যেকোনো ইন্টারভিউতে হতে হবে। প্রশ্নকর্তা এর মাধ্যমে জানতে চান, এই চাকরির ব্যাপারে আপনি কতটা আগ্রহী এবং আবেদনের আগে আপনি কোম্পানির সম্পর্কে খোঁজখবর নিয়েছেন কি না। কাজেই প্রস্তুত থাকুন এই প্রশ্নের উত্তর দিতে, ইন্টারনেটে কোম্পানির সম্পর্কে যথেষ্ট রিসার্চ করুন, যাতে করে আপনাকে বিড়ম্বনার সম্মুখীন না হতে হয় এবং বলুন অনেকটা এভাবে :

‘Your company is very well known for the customer service and you also won an award for the best service provider in the country.’ (কাস্টমার সার্ভিসের জন্য আপনাদের কোম্পানি সুপ্রসিদ্ধ এবং দেশের সেরা পণ্যসেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে আপনারা পুরস্কারও পেয়েছেন।)

৬. How well do you handle change? (পরিবর্তনের সঙ্গে আপনার মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা কতখানি?)

কর্মক্ষেত্রে পরিবর্তন একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। অনেকেই এই পরিবর্তনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নিজেকে বদলে নিতে পারেন না। প্রশ্নের জবাবে আপনি যে পরিবর্তনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সক্ষম, তা বলার সঙ্গে সঙ্গে চাইলে আপনার আগের কর্মক্ষেত্রে ঘটে যাওয়া এই সংশ্লিষ্ট কোনো ঘটনা নিয়েও বলতে পারেন অনেকটা এভাবে :

‘Of course I can handle a change. In my previous company, one of my bosses had to quit and the new boss changed the complete strategy of a project. We managed it with our team efforts and definitely, the result was good. So of course I am very flexible (ফ্লেক্সিবল) and hardworking too.’

(অবশ্যই আমি এ ধরনের পরিস্থিতির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে পারব। আমার আগের কর্মক্ষেত্রে একজন বস চাকরি ছেড়ে দেওয়ার পরে তাঁর জায়গায় নতুন যিনি যোগ দেন, তিনি এসেই আমাদের চলমান একটি প্রজেক্টের সম্পূর্ণ স্ট্র্যাটেজি বদলে দেন। আমরা তার পরেও নতুন স্ট্র্যাটেজির সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে কাজ সম্পন্ন করি এবং এর ফলাফলও বেশ ভালো ছিল। কাজেই বলা যেতে পারে, আমি পরিবর্তনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সক্ষম এবং আমি পরিশ্রমী।)

৭. How well do you work under pressure? (আপনি কতখানি কাজের চাপ নিতে সক্ষম?)

অতিরিক্ত কাজের চাপ নিতে আপনি কতখানি উপযুক্ত, তা জানতে এই প্রশ্ন করা হয়। এই প্রশ্নের জবাবে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বলুন :

‘Working under pressure or without pressure works just the same for me.’ অর্থাৎ, কাজের চাপ থাকুক অথবা না থাকুক, দুই ক্ষেত্রেই আপনি মানিয়ে নিতে সক্ষম এবং অতিরিক্ত কাজের চাপ আপনাকে প্রভাবিত করে না।

৮. How do you handle important decisions? (গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে আপনি কতটা বিচক্ষণ?)

কর্মক্ষেত্রে অনেক সময়ই আপনাকে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে হতে পারে। সেসব সিদ্ধান্তের সঙ্গে জড়িত থাকে কোম্পানির ভবিষ্যৎ এবং লাভ-ক্ষতি। এমন প্রশ্নের জবাবে ঘাবড়ে না গিয়ে বলুন :

‘Handling decisions is definitely considered to be a little difficult. But, I am sure I can do it by relying (রিলায়িং) on my experience. I would also look at the pros and cons, and take some advice from my team members which will help me to take a better decision.’ অর্থাৎ, সিদ্ধান্ত নেওয়া সব সময়েই একটি কঠিন কাজ। তবে আমি আমার অভিজ্ঞতার ওপর ভিত্তি করে সিদ্ধান্ত নিতে চেষ্টা করব। আমি পুরো বিষয়টির খুঁটিনাটি যাচাই করব এবং আমার টিম মেম্বারদের সঙ্গে আলোচনা করা সাপেক্ষে কোম্পানির জন্য মঙ্গলজনক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করব।

ইন্টারভিউ দেওয়ার সময়ে চেষ্টা করুন এক শব্দে বা এক লাইনে জবাব দেওয়ার বদলে সময় নিয়ে জবাব দিতে। শব্দচয়ন, উচ্চারণের মতন ব্যাপারগুলোর প্রতি বিশেষ খেয়াল রাখুন। রুমে প্রবেশের আগে মোবাইল ফোন সাইলেন্ট করে নিন। চেষ্টা করুন নির্ধারিত সময়ের কিছু আগেই ইন্টারভিউ যেখানে নেওয়া হবে, সেখানে পৌঁছে যেতে। ইন্টারভিউর আগের রাতেই প্রয়োজনীয় কাগজপত্র গুছিয়ে নিন। নিজের সম্পর্কে আত্মবিশ্বাসী থাকুন। জয় আপনার সুনিশ্চিত। (copy from: https://bit.ly/2ZkGvcl)

১৪০০ জনের বিশাল নিয়োগ প্রকাশ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এ

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, খামারবাড়ি, ঢাকা। স্থায়ী এবং অস্থায়ীভাবে ১৪টি পদে মোট এক হাজার ৩৫৭ জনকে নিয়োগ দেবে। নারী ও পুরুষ উভয়কেই নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

পদের নাম

স্টোর কিপার, পরিসংখ্যান সহকারী, অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক,  ক্যাশিয়ার, লাইব্রেরিয়ান, স্প্রেয়ার মেকানিক ও নিরাপত্তা প্রহরী/অফিস গার্ডসহ মোট ১৪ টি পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

পদসংখ্যা

১৪টি পদে সর্বমোট ১৩৫৭ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে।

শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা

যেকোনো স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে স্নাতক পাসসহ উচ্চমাধ্যমিক, মাধ্যমিক এবং অষ্টম শ্রেণি পাস প্রার্থীরা বিভিন্ন পদের জন্য আবেদন করতে পারবেন। কিছু কিছু পদের জন্য কম্পিউটার চালনায় দক্ষাতা ও উক্ত পদের জন্য কাজের অভিজ্ঞতা প্রয়োজন। আবেদনকারীর বয়সসীমা ন্যূনতম ১৮ থেকে অনূর্ধ্ব ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে।

বেতন  স্কেল

বিভিন্ন পদের জন্য জাতীয় বেতন স্কেল-২০১৫ অনুযায়ী বেতন-ভাতা দেওয়া হবে।

আবেদনের নিয়ম

আগ্রহী প্রার্থীদের অনলাইনের (http://dae.teletalk.com.bd) মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।  এ ছাড়া আবেদনের সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা আছে।

আবেদনের সময়সীমা

অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন ও ফি প্রদান করা যাবে ৭ আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১০টায় এবং শেষ হবে  ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকেল ৫টায়।

সূত্র : কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর